ইউটিউব এর শর্ট ভিডিও ভাইরাল এর দারুন কিছু টিপস অ্যান্ড ট্রিক্স

টিপস অ্যান্ড ট্রিক্স

আজ এই আরটিকেলের মাধ্যমে ইউটিউব এর শর্ট ভিডিও ভাইরালের এমন কিছু ঠিক বলব যেগুলো আপনি যদি কাজে লাগান তাহলে আপনি খুব তাড়াতাড়ি আপনার শর্ট ভিডিওকে ভাইরাল করতে পারবেন । আপনারা হইত সকলেই জানে ইউটিউব 2023 সালের জানুয়ারি মাস থেকে। শর্ট চ্যানেল শর্ট ভিডিওকে মনিটাইজ করছে। সে ক্ষেত্রে আপনি খুব তাড়াতাড়ি শর্ট ভিডিও ভাইরাল করে আপনার ইউটিউব চ্যানেলটি মনিটাইজ করতে পারেন এবং আপনি ইউটিউব থেকে ইনকাম শুরু করতে পারেন । আর আপনারা হয়তো জানেন বা লক্ষ্য করেছেন ইউটিউব এর শর্ট ভিডিও খুব তাড়াতাড়ি ভাইরাল হয়।

বেশি ভিউ পাওয়ার উপায়ঃ

কিন্তু আপনার ভিডিও আপনি যখন আপলোড করেন আপনার ভিডিও ভাইরাল হয় না। 200 300 500 1000 বা 2হাজার ভিউজে আটকে যায়। আপনার ভিডিওতে মিলিয়নভিউজ ক্রজ করে না বা 100k ভিউজ ক্রজ করে না। সেই জন্য আপনারা অনেকটা ডিমোটিবের্ড হয়ে যান।

আমি আজ এই আরটিকেলে এমন কিছু ট্রিক বলে দেবো যে ট্রিকগুলো আপনি যদি কাজে লাগান তাহলে আপনার শর্ট ভিডিও ভাইরাল হওয়া শুরু হয়ে যাবে। শর্ট ভিডিও ভাইরাল এর প্রথম ট্রিক হচ্ছে আপনাকে অবশ্যই ইন্টারেস্টিং টপিক নিয়ে কাজ করতে হবে। আপনি খেয়াল করবেন ইউটিউবে অনেক শর্ট ভিডিও ভাইরাল হয়, মিলিয়ন মিলিয়ন ভিউজ যায় সেই ভিডিও গুলো অবশ্যই ইন্টারেস্টিং টপিকের উপরে ক্রিয়েট করা। সেই জন্য আপনাকে ইন্টারেস্টিং ট্রপিকের উপরে ভিডিও ক্রিয়েট করতে হবে।

দ্বিতীয়ত আপনার ভিডিওতে ওয়াচটাইম আনতে হবে, আপনি আপনার শর্ট ভিডিওতে ওয়াচটাইম যত বেশি আনতে পারবেন তত আপনার ভিডিও ভাইরাল হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে। শর্ট ভিডিও ভাইরাল করতে গেলে না থাম্বেল ম্যাটার করে, না টাইটেল, না ডিসক্রিপশন বক্স কোন কিছুই ম্যাটার করে না, আপনাকে ভিডিওতে সাসপেন্স ক্রিয়েট করতে হবে।

কি কি টপিকে ভিডিও বানাবেন?

আপনার ভিডিওটা যেনো ইন্টারেস্টিং হয় ভিডিওতে অডিয়েন্সকে ধরে রাখতে হবে মিনিমাম 30 থেকে 40 সেকেন্ড অডিয়েন্স যেন না যায়। অডিয়েন্স যেন ভিডিওটা দেখতে দেখতে মনে করে যে এই ভিডিওর মধ্যে কিছু একটা রয়েছে, পরে কি হয় তা জানার আগ্রহ জাগে । এরকম টাইপের আপনাকে ভিডিও ক্রিয়েড করতে হবে। আপনি যখন এরকম টাইপের ভিডিও বানানো শিখে যাবেন তখন দেখবেন যে আপনার শর্ট ভিডিও ভাইরাল হওয়া শুরু হয়ে যাবে।

আশা করি বুঝতে পেরেছেন শর্ট ভিডিও ভাইরাল করার আহমরি কোন ট্রিক নেই আপনি যদি রেগুলার বেজে শর্ট আপলোড করেন এবং এই ট্রিক গুলো ফলো করে যান তাহলে আপনার শর্ট ভিডিও ভাইরাল হওয়া শুরু হয়ে যাবে। এই হচ্ছে সহজ ট্রিক আপনি টাইটেল দিন, টাইটেল দিলেন, এবার শর্ট ভিডিও আপনি ইন্টারেস্টিং বানালেন, দিনের একটা শিডিউল মেনটেন করে দুই থেকে তিনটা শর্ট ভিডিও আপলোড করতে থাকলেন। তাহলে দেখবেন যে আপনার সব ভিডিওতে অটোমেটিক্যালি ভিউজ আসা শুরু হবে।

কতটি শর্ট ভিডিও আপলোড করতে হবে?

আপনি হয়তো বিশটা ত্রিশটা বা পঞ্চাশটা শর্ট ভিডিও আপলোড করেছেন। আপনি রেগুলার ভাবে কাজ চালিয়ে যান মিনিমাম 200 থেকে 300 শর্ট ভিডিও আপলোড করুন দেখবেন যেকোনো একটির ভিডিওর মধ্যে একটা শর্ট ভিডিও অটোমেটিক্যালি ভাইরাল হয়ে যাবে। তারপর আপনার চ্যানেলের সমস্ত শর্ট ভিডিও ভাইরাল হওয়া শুরু হয়ে যাবে। এই ভাবে কাজ করতে থাকুন অবশ্যই আপনি সফল হতে পারবেন।

কেমন ভিডিও মানুষ বেশি দেখে?

শর্ট চ্যানেল খুব তাড়াতাড়ি গ্রো করে ইউটিউব খুব তাড়াতাড়ি শর্ট ভিডিও কে ভাইরাল করে। এটা সবাই জানে আপনারাও জানেন আমরা জানি সেজন্য আপনি এইসব ভিডিও নিয়ে কাজ করতে পারেন তবে আপনাকে ভিডিওর দিকে মনোযোগ দিতে হবে।

ভিডিওটা ভালো ক্রিয়েট করতে হবে, ভিডিওর মধ্যে সাসপেন্স ক্রিয়েট করতে হবে। আশা করি বুঝতে পেরেছেন, যদি আর্টিকেলটি ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই এই ওয়েবসাইটের সাথে যুক্ত থাকবেন, ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *